‘সেক্স‌’ হলো আমার সৌন্দর্যের চাবিকাঠি! শ্রীলেখার মুখের কথা শুনে তুমুল সোরগোল সোশ্যাল মিডিয়ায়

টলিউডের সাহসী কন্যাদের মধ্যে যাদের নাম উঠে আসে তাদের মধ্যে শ্রীলেখা মিত্র একজন। ঠোঁটকাটা বলে বরাবরই পরিচিত মহলে নাম আছে তার। মাঝে মধ্যেই তিনি এমন এমন কিছু পোস্ট করেন বা কথা বলেন যা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় রীতিমতো হইচই পড়ে যায়। সুশান্ত সিং রাজপুতকে কেন্দ্র করে যখন বলিউডের নেপোটিজম দানা বেঁধেছিল সেই সময় টলিউডের নেপোটিজমের কথা বলতে গিয়ে টলিউডের জনপ্রিয় দাদা দিদি (অর্থাৎ প্রসেনজিৎ ঋতুপর্ণা)র দিকে অভিযোগের আঙ্গুল তাক করেছিলেন অভিনেত্রী, প্রকাশ্যেই বলেছিলেন যে প্রসেনজিৎ ঋতুপর্ণার জন্যই তিনি ছবিতে চান্স পাননি,তার অভিনীত অন্নদাতা ছবি হিট হওয়ার পরেও। তার এই বক্তব্যের পর রীতিমতো জলঘোলা শুরু হয়ে যায়, পক্ষ-বিপক্ষে একাধিক মন্তব্য উঠে এসেছিলো, কিছু মানুষ তার বিপক্ষে কথা বলেছিলেন কিছু মানুষ তাকে সমর্থন করেছিলেন।

এরপর যখন সর্বজয়া ধারাবাহিকের কারণে দেবশ্রীকে ট্রোলিং করা শুরু হয়, তখন ও কলম ধরেন শ্রীলেখা, পাশে দাঁড়ান দেবশ্রী রায়ের, প্রমাণ করে দেন অন্যান্য তিনি তার মত‌ই। সোশ্যাল মিডিয়ায় নানান কারণে প্রায়শই উঠে আসে তার নাম। কখনো ইউটিউবে তার অনুরাগীদের উদ্দেশ্যে বলা নতুন কোন বক্তব্যের জন্য, কখনো বা তার শরীর চর্চার জন্য, কখনো আবার তার ডায়েটিং এর জন্য।

২৫ বছর পেরিয়ে যাওয়ার পরেও আজও অন্নদাতার নায়িকা শ্রীলেখা সেই একইরকম লাবণ্য ধরে রেখেছেন নিজের মধ্যে। তার এই লাবণ্যময় সৌন্দর্যের পেছনে আসল কারণ কী এই নিয়ে প্রায়ই অনুরাগীরা প্রশ্ন করেন জানতে চান যে অভিনেত্রী সৌন্দর্যের পেছনের মূল কারণ কী। কিছুদিন আগেই যেমন একজন অনুরাগী প্রশ্ন করে জানতে চেয়ে ছিলেন, আপনার বয়স কত আর আপনার সৌন্দর্য্যের রহস্য কী?

কৌতুহলী ভক্তের এই প্রশ্ন চোখ এড়ায়নি শ্রীলেখার। অনুরাগীর প্রশ্নের উত্তর দিয়ে একটু কৌতুকের ছলে তিনি লেখেন, “আর কয়েক বছর পরেই হাফ সেঞ্চুরি করব।” অর্থাৎ আর কয়েক বছর পর তার বয়স ৫০ হবে। তার সৌন্দর্যের পেছনে কী কারণ তা বলতে গিয়ে অভিনেত্রী লেখেন, “এজ নো বার, কাস্ট নো বার, সেক্স বারবার।”

বলাই বাহুল্য এরকম একটি কমেন্ট করার পর অনেকেই যেমন তার এই বক্তব্য টিকে হাসি মজা কৌতুকের ছলে নিয়েছেন অনেক নীতি পুলিশ রা এই মন্তব্যটির চুলচেরা বিশ্লেষণ করতে শুরু করেছেন, অনেকেই অশ্লীল মন্তব্য করেছেন অভিনেত্রীর প্রতি। তবে সাহসী শ্রীলেখা কোনদিনই এই সমস্ত বক্তব্যকে বিশেষ পাত্তা দেননি, যদি দিতেন তাহলে হয়তো বয়স লুকিয়ে রাখতেন, মেকআপ ছাড়া নিজের ছবি দেওয়ার সাহস পেতেন না।

শ্রীলেখা মিত্র কিছুদিন আগেই সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি প্রশ্ন-উত্তরের খেলা শুরু করেছেন অর্থাৎ অনুরাগীদের একটি করে মজার প্রশ্নের উত্তর তিনি প্রতিদিন দেবেন। গত বুধবার সঞ্জীব নামের একজন যখন তাকে জিজ্ঞেস করেন যে কীভাবে তার সাথে দেখা করতে পারবেন সেই ভক্ত? তখন তার উদ্দেশ্যে অভিনেত্রী বলেন,“ যদি তুমি সত্যিই আমাকে ভালোবাসো তাহলে রাস্তার কুকুর বিড়ালের একটু দেখো। ওদের নিয়ে ভালোবেসে তুমি যদি ছবি দাও তাহলে আমি কফি ডেটে নিয়ে যাবো, ডান।”

error: Content is protected !!