‘আর্সেনিকম অ্যালবাম ৩০’ হোমিওপ্যাথি ওষুধই কি ঠেকাবে করোনা ভাইরাস? অ্যাডভাইস জারি আয়ুষ মন্ত্রকের

  • 303
    Shares

করোনা ভাইরাস পা রেখেছে ভারতেও। এই মারাত্মক ভাইরাস থেকে বাঁচতে মুখোশ পরে ঘুরছেন সাধারণ মানুষ। এরই মাঝে ২৯ জানুয়ারি এক অ্যাডভাইজারি প্রকাশ করেছে আয়ুষ মন্ত্রক। করোনাভাইরাসের হামলা ঠেকাতে এক হোমিওপ্যাথিক ওষুধ গ্রহণের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে তাতে। এই ওষুধের নাম ‘Arsenicum album 30’। এই ওষুধটি করোনা ভাইরাস আক্রান্ত রোগীদের জন্য নয়। যাতে সহজে ভাইরাস সংক্রমণ না হয় সেইজন্য। এই ওষুধ মানুষের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে। ফলে ভাইরাস সহজে আক্রমণ করতে পারে না। আয়ুষ মন্ত্রক প্রেস ইনফর্মেশন ব্যুরো বা পিআইবি-র টুইটার পেজে এই অ্যাডভাইজারি প্রকাশ করেছে।

অ্যাডভাইজারি অনুযায়ী, সেন্ট্রাল কাউন্সিল ফর রিসার্চ ইন হোমিওপ্যাথি (সিসিআরএইচ) ২৮ জানুয়ারি ২০২০ নিজেদের বৈজ্ঞানিক পরামর্শক বোর্ডের ৬৪ তম সভায় করোনোভাইরাস সংক্রমণ থেকে রক্ষা পাওয়ার উপায় এবং পদ্ধতি নিয়ে আলোচনা করেছে। বিশেষজ্ঞরা তাতে জানিয়েছেন হোমিওপ্যাথিক ওষুধ ‘আর্সেনিকম অ্যালবাম 30′ ওষুধে করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঠেকানো যেতে পারে।

এই ওষুধ ৩ দিন খালি পেটে খাওয়ার কথা বলা হচ্ছে। সংক্রমণের হওয়ার এক মাস পর এই ওষুধ ফের খাওয়ার পরামর্শ রয়েছে। ইনফ্লুয়েঞ্জা জাতীয় রোগের প্রতিরোধেও এই ওষুধ খাওয়া যেতে পারে বলেই দাবি।

তবে অল্টনিউজ জানিয়েছে, আয়ুষ মন্ত্রকের এই অ্যাডভাইজারি সঠিক নয়। ‘আর্সেনিকম অ্যালবাম 30′ করোনা ভাইরাসের উপর কাজ করে না। কোথাও কোনও গবেষণা নেই যেখানে করোনা ভাইরাস এবং এই ওষুধের সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছে।

অ্যাডভাইজারিতে উল্লিখিত পরামর্শ

পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকুন।
বার বার হাত ধোন
অপরিষ্কার হাত দিয়ে নাক, চোখ এবং মুখ চুলকোবেন না
অসুস্থ মানুষ থেকে দূরে থাকুন।
নিজে অসুস্থ হলে বাড়িতেই থাকুন।
কাশি এবং হাঁচির সময় রুমাল বা টিস্যু ব্যবহার করুন এবং হাতও ধুয়ে ফেলুন।
N-95 মাস্ক ব্যবহার করুন।
যদি আপনি নিজের শরীরে করোনা ভাইরাসের লক্ষণ দেখেন তবে মুখোশ পরে তৎক্ষণাত নিকটস্থ হাসপাতালে যান।
আয়ুষ মন্ত্রকের মতে, তুলসী, গোলমরিচ এবং অশ্বত্থের মতো আয়ুর্বেদিক টোটকায় মানুষ উপকার পেতে পারেন। ইউনানি ওষুধে শরবতউন্নব, তির্যকঅর্বা, তির্যক নাজালা, খামিরা মার্বারিদ জাতীয় ওষুধ খেতে রোগীদের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।