নখকুনি ভালো করতে এই পাঁচটি ঘরোয়া টিপস দেখে নিন এক নজরে

  • 98
    Shares

মাঝে মাঝে নখ বসে গিয়ে নখকুনি সমস্যা দেখা দেয় আবার কারো কারো এই নখকুনির সমস্যা আবার চিরস্থায়ী। নোক্স বসে গিয়ে নখের কোনা ফুলে গিয়ে প্রচণ্ড ব্যথা হয় তার সঙ্গে আবার মাঝে মাঝে রক্ত বেরোয় । যদিও অনেক ওষুধ খাওয়া হয় কিন্তু তা সত্ত্বেও কোনো স্থায়ী সমস্যার সমাধান হয় না কিন্তু কয়েকটি ঘরোয়া পদ্ধতি আছে যা আপনি ব্যবহার করলে এবং কাজে লাগালে নখকুনির সমস্যা থেকে চিরতরে মুক্তি পেতে পারেন। আসুন জেনে নেওয়া যাক সেই সমস্ত ঘরোয়া অব্যর্থ কয়েকটি উপায়-

1▪ শ্যাম্পু- প্রতিদিন রাত্রে বেলা গরম জল নিয়ে তার মধ্যে শ্যাম্পু খুলে তার মধ্যে পা দিয়ে বেশ কিছুক্ষণ বসে থাকুন তারপর ঠাণ্ডা হয়ে গেলে পায়ের নখ ভালো করে ঘষে পরিষ্কার করে দিন এটি পরপর তিন থেকে চারদিন করলে সহজেই নখকুনির সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

2▪ নারকেল তেল – নখকুনির ব্যথা এবং যন্ত্রণা থেকে উপশম পেতে প্রতিদিন রাত্রে বেলা ঘুমাতে যাওয়ার আগে যে জায়গায় নখকুনি হয়েছে সেই জায়গায় কয়েক ফোঁটা নারকেল তেল দিয়ে শুয়ে পড়ুন।পরদিন সকালে উঠে দেখবেন ব্যথা থেকে অনেকটাই রেহাই পাওয়া গেছে।

3▪ গরম জল – গরম জল করে ব্যথা কমাতে সাহায্য করে তাই প্রতিদিন রাত্রে বেলা কিছুটা পরিমাণে গরম জল করে তার মধ্যে পাট দিয়ে বেশ কিছুক্ষণ বসে থাকুন এতে আরাম পাবেন সহজেই।

4▪ বেকিং সোডা – খাবারের স্বাদ বাড়ানোর পাশাপাশি বেকিং সোডা নখকুনির ব্যথা কমাতে সাহায্য করে তাই গরম জলের মধ্যে এক চামচ বেকিং সোডা মিশিয়ে তারপর পা ডুবিয়ে রাখুন এবং ঠাণ্ডা হয়ে গেলে পা ঘষে ঘষে পরিষ্কার করে ফেলুন।

5▪ লেবুর রস – এক বালতি গরম জলের মধ্যে কয়েকটি লেবু চিপে রস বের করে নিন তারপর তার মধ্যে ঢুকিয়ে রাখুন এতে নখকুনির ব্যথা থেকে সহজেই উপশম পাওয়া যায়।

যদি আপনার নখকুনির সমস্যা দীর্ঘস্থায়ী হয় তাহলে এই পাঁচটি পদ্ধতির মধ্যে যেকোনো একটি পদ্ধতি প্রতিদিন রাত্রে বেলা একবার করে ব্যবহার করে দেখতে পারেন এতে আপনার কষ্ট সহজেই লাঘব হবে।

One thought on “নখকুনি ভালো করতে এই পাঁচটি ঘরোয়া টিপস দেখে নিন এক নজরে

error: Content is protected !!