ক্রমশ হিন্দু রাষ্ট্রের দিকে এগোচ্ছে ভারত: আসাদউদ্দিন ওয়েইসি, হায়দরাবাদের সাংসদ

পশ্চিমবঙ্গ 24×7 ডিজিটাল ডেস্ক: শনিবার প্রায় ছয় দশক ধরে চলা অযোধ্যা মামলার রায় দিয়ে নিষ্পত্তি ঘটিয়েছে দেশের সর্বোচ্চ আদালত৷ সুপ্রিম কোর্টের রায় অনুযায়ী অযোধ্যার বিতর্কিত 2.7 একর জমিতে নির্মিত হবে রামমন্দির অন্যদিকে অযোধ্যা সীমানা লাগোয়া পাঁচ একর জমি মুসলিমদের বিকল্প জমি হিসেবে মসজিদ নির্মাণের জন্য দেওয়া হবে৷ এই রায় দাবির পর সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডের আইনজীবী জানিয়েছেন তিনি এই রাজধানী সন্তুষ্ট নন, সুপ্রিম কোর্টের রায়দানের পর মুখ খুলেছেন অল ইন্ডিয়া মজলিস এ ইত্তেহাদুল মুসলিমিন প্রধান তথা হায়দরাবাদের সাংসদ আসাদউদ্দিন ওয়েইসি৷

ক্ষোভ প্রকাশ করে ভারত ক্রমশ হিন্দু রাষ্ট্রের দিকে এগোচ্ছে বলে মত প্রকাশ করেন৷ একই সঙ্গে অযোধ্যা থেকে শুরু করে এনআরসি সিটিজেন্স অ্যামেন্ডমেন্ট বিল সহ একাধিক ইস্যু ব্যবহার করবে সঙ্ঘ ও পরিবার ও বিজেপি, এমনটাই মন্তব্য করেছেন তিনি৷ এমনকি তাঁর কথা ফলে যাবে এটাও বলেছেন তিনি৷এখানেই থেমে থাকেননি আর এক কদম এগিয়ে গিয়ে সুপ্রিম কোর্টের রায়ে যেহেতু অযোধ্যায় মন্দির ছিল এমন প্রমাণ পাওয়া যায়নি তাহলে কী করে এই রায় দেওয়া হয়েছে?প্রশ্ন তোলেন, এমনকি সেখানে মসজিদ থাকলে সর্বোচ্চ আদালত কী করত? সে বিষয়েও প্রশ্ন তোলেন৷

এর পাশাপাশি তিনি আরও দাবি করেন সুপ্রিম কোর্টের রায়ে বাস্তব সত্যের জয় হয়নি, আস্থার জয় হয়েছে৷ এমনকি সুপ্রিম কোর্টের তাই যে পাঁচ একর জমি মুসলিমদের মসজিদ নির্মাণের জন্য দেওয়া হবে ঘোষণা করা হয়েছে তাঁকে সরকারের খয়রাতি বলে উল্লেখ করেছেন তিনি৷ হায়দরাবাদের সাংসদ আরও জানিয়েছেন, আমরা আমাদের আইনি অধিকারের জন্য লড়ছি, ভারতের মুসলমানদের এতটা খারাপ দিনও আসেনি যে খয়রাতির জমি দিতে হবে, আমরা যদি এ ভাবেই ভিক্ষা করতে থাকি তাহলে এগোতে পারব না, তাই আমার ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত আমাদের এই পাঁচ একর জমির প্রস্তাব খারিজ করে দেওয়া উচিত৷

আসাদুদ্দিন ওয়েইসির এ ধরনের মন্তব্যের পর কার্যত দেশ জুড়ে তোলপাড় শুরু হয়েছে, সরকারের জমিকে খয়রাতি বলে উল্লেখ করায় অনেকেই তাঁর মন্তব্যের জন্য ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন৷

Loading...
error: Content is protected !!