রেশন কার্ড হোল্ডারদের জন্য বড়োসড়ো সুখবর, মিলতে চলেছে একাধিক সুবিধা! রেশন ছাড়া রেশন কার্ডের আর কী কী সুবিধা আছে জেনে নিন

করোনাকালে গরীব মানুষদের কাছে যেন রেশন কার্ডই ভরসাস্থল হয়ে দাঁড়িয়েছে। করোনাতে যখন বহু মানুষ একের পর এক কাজ হারাচ্ছেন তখন রাজ্য সরকার থেকে শুরু করে কেন্দ্র সরকার প্রত্যেকে গরিব মানুষদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য ফ্রিতে রেশন দিচ্ছেন আর করোনাতে বহু মানুষ কর্ম হারিয়ে বেকার হয়ে পড়েছেন, ফ্রিতে রেশন পাওয়ায় তাদের সংসারেও একটু সুবিধা হচ্ছে। তবে ফ্রিতে রেশনের এই সুবিধা পেতে গেলে অবশ্যই রেশন কার্ড থাকতে হবে। কিন্তু শুধু কি রেশন কার্ড থাকলে ফ্রিতে রেশন ই পাওয়া যায়? না অনেকেই হয়তো জানেন না ফ্রিতে রেশন পাওয়া ছাড়াও রেশন কার্ডের মাধ্যমে অনেক রকম সুবিধা পাওয়া যায় , সেই সকল সুবিধাগুলোর বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।

করোনাকালে বিনামূল্যে রেশন দিয়ে কেন্দ্র সরকার ও রাজ্য সরকার সাধারণ মানুষের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। করোনা পরিস্থিতির কারণে আগামী নভেম্বর মাস পর্যন্ত বিনামূল্যে রেশন দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে কেন্দ্র সরকার। কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে, পরিবারের প্রত্যেকটি সদস্যদের জন্য ৫ কেজি করে রেশন দেওয়া হবে। এই ঘোষণার পর থেকে স্বাভাবিকভাবেই খেটে খাওয়া গরিব মানুষদের মুখে হাসি ফুটেছে। ফ্রিতে রেশন পরিষেবা তারাই পাবেন যাদের রেশন কার্ড আছে। এখন যদি একটি পরিবারের কোনো সদস্যের রেশন কার্ড না থাকে তখন উপায়? না সে ক্ষেত্রে চিন্তার কিছু নেই কারণ অনলাইনে খুব সহজে রেশন কার্ড করিয়ে নেওয়া যায়।

অনলাইনে রেশন কার্ড করাতে খুব বেশি খরচ ও পরে না, নামমাত্র স্বল্প খরচেই এটি সম্ভব। অনলাইনে রেশন কার্ড তৈরির আবেদন করার পদ্ধতি ও খুব সহজ। প্রথমেই খাদ্য বিভাগের ওয়েবসাইটে গিয়ে apply online for ration card লিংকে ক্লিক করে আবেদন করতে হবে। এরপর রেশন কার্ড তৈরির জন্য আধার কার্ড ,ভোটার কার্ড ,পাসপোর্ট ইত্যাদি গুরুত্বপূর্ণ ডকুমেন্টস দিতে হবে। এই ফর্মটি ফিলাপ করে টাকা জমা দেওয়ার পর অ্যাপ্লিকেশন সাবমিট করলে ফিল্ড ভেরিফিকেশন হবে‌। ফিল্ড ভেরিফিকেশনের প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়ে গেলেই রেশন কার্ড তৈরি হয়ে যাবে।

এই রেশন কার্ডের সাহায্যে ফ্রিতে রেশন ছাড়াও একাধিক সুবিধা মানুষ পেয়ে থাকেন। সেই সুবিধা গুলি কী কী জানেন? রেশন কার্ড থাকলে এই কার্ডের সাহায্যে গ্যাসের কানেকশন করানো যায় আবার এই রেশন কার্ড‌ ই হলো ঠিকানার একটি প্রমাণ পত্র। এছাড়া ভোটার আইডি থেকে শুরু করে অনেক গুরুত্বপূর্ণ ডকুমেন্ট তৈরি করবার জন্য রেশন কার্ডের দরকার হয় , রেশন কার্ড সত্যিই খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি ডকুমেন্ট।

উল্লেখ্য, রেশন কার্ড তিন রকমের হয়‌ APL,BPL,AAY। কারোর ইনকাম যদি ২৭ হাজার টাকার কম হয় তাহলে তিনি দারিদ্র্যসীমার নীচের রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারবেন ও সেই রেশন কার্ড পেয়ে গেলে অনেক অতিরিক্ত সুবিধা পাবেন।

One thought on “রেশন কার্ড হোল্ডারদের জন্য বড়োসড়ো সুখবর, মিলতে চলেছে একাধিক সুবিধা! রেশন ছাড়া রেশন কার্ডের আর কী কী সুবিধা আছে জেনে নিন

Leave a Reply