বিদ্যুতের খুঁটিতে উঠে ভয়ংকর পরিনাম হলো চিতাবাঘের, মুহুর্তের মধ্যে ভাইরাল হলো সেই ভিডিও

আমরা অনেক উন্নত সভ্যতায় বাস করি।যত দিন যাচ্ছে ততই আমরা আরও উন্নত হচ্ছে এবং আমাদের চাওয়া পাওয়া গুলো আরো বেশি উন্নততর হচ্ছে।কিন্তু সভ্যতার উন্নয়ন করতে গিয়ে অনেক সময় প্রাণ হারাতে হচ্ছে জলজ্যান্ত একটি নিরীহ জীবনকে।অনেক সময় এগুলি ইচ্ছাকৃতভাবে হয়না কিন্তু অনেক সময় আবার অবলা কোন প্রাণীর ভুলের কারণে তাদেরকে প্রাণ হারাতে হয়।যদিও আমরা সকলেই জানি অবলা প্রাণীরা কথা বলতে না পারলেও তাদের মধ্যে কিন্তু বোঝার ক্ষমতা থাকে তাই তাদের খুব একটা বিপদ আপদ হয় না কিন্তু কখনও শোনা যায় রেল দুর্ঘটনায় হাতি বাঘ মারা গেছে আবার কখনো অন্য কোন কারণে প্রাণ হারাতে হয় তাদের।

ঠিক সেভাবেই এবার বিদ্যুৎ খুঁটির ওপর এই ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার হলেও এক চিতাবাঘের দেহ।সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ভিডিওটি রীতিমতো ভাইরাল হয়ে গেছে সেখানে দেখা গিয়েছে একটি চিতাবাঘ বিদ্যুতের খুঁটি থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় রয়েছে।জানা গিয়েছে খাবারের খোঁজে জঙ্গল থেকে এসেছিল সেই চিতাবাঘ কিন্তু ভুলবশত 12 ফুট উচ্চতার একটি বিদ্যুৎ পোষ্টের ওপর উঠে পড়ে সে আর সেখানেই বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে তার মৃত্যু হয়।পরে বনদপ্তর এ খবর দিলেই সাময়িকের জন্য বনদফতরের কর্মীরা বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন করে চিতাবাঘ দেহ নিচে নামিয়ে নিয়ে আসে।

আসলে শহরতলী কিংবা গ্রামাঞ্চলে এখন মানুষ আর হ্যারিকেনের আলোয় কিংবা মোমবাতি জ্বেলে পড়াশোনা করে না কিংবা কাজ করে না তার থেকে বরং ও বিদ্যুতের প্রয়োজন বেশি হয়ে পড়েছে।যত দিন যাচ্ছে ততই এভাবে একদিকে যেমন বিদ্যুতের প্রয়োজনীয়তা বাড়ছে তার সঙ্গে আবার সমস্ত জায়গাতেই বিভিন্ন রকমের আলো বৈদ্যুতিক বাতি ইত্যাদির পোস্ট তৈরী করা হচ্ছে।

মাঝেমাঝেই শোনা যায় সেই রকম বৈদ্যূতিক বিদ্যুতের খুঁটি বা বৈদ্যুতিক আলোতে দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন কেউ-না-কেউ।বিশেষ করে অবলা জন্তু জানোয়াররা তাই আমাদের সর্বদা সাবধান থাকতে হবে আমাদের সচেতন থাকতে হবে যাতে এই ধরনের বিপদ আপদ কোনভাবেই না আসতে পারে তার জন্য আমাদের আরও অনেক নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিতে হবে।

One thought on “বিদ্যুতের খুঁটিতে উঠে ভয়ংকর পরিনাম হলো চিতাবাঘের, মুহুর্তের মধ্যে ভাইরাল হলো সেই ভিডিও

Leave a Reply