নেই বাবা-মা, স্টেশনে দাঁড়িয়ে ঝালমুড়ি বিক্রি করে নিজের পেট চালায় বছর আটের এক রত্তি, সাহায্যের আর্তি নেট জনতার

  • 1.5K
    Shares

প্রতিদিন আমাদের চলার মাঝে অনেক জিনিস চোখে পড়ে যেগুলো দেখে আমরা কিছুক্ষনের জন্য ভাবি আবার কিছুক্ষণের জন্য মন কে নাড়িয়ে দেয় আবার আমাদের মন আগের অবস্থায় ফিরে আসে।প্রতিদিন অফিস কলেজ বা কর্মক্ষেত্রে যাবার পথে এমন কোন মানুষকে দেখিয়ে যা দেখে হয়তো আমাদের চোখে জল আসতে বাধ্য এবার বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে সেই দৃশ্যগুলো বার বার চোখের সামনে ধরা পড়ছে।কেউ চোখে দেখতে পায় না সে অন্ধত্ব নিয়ে ধুপকাঠির ব্যবসা করছে আবার কেউ দুটি পা না থাকার সত্বেও নিজে নিজেই কিছু বিক্রি করছে ট্রেনে কিন্তু এবার দেখা গেল সম্পূর্ণ অন্য চিত্র।জানিনা নেট পড়ার দৌলতে সে আজ super-duper হয়ে যাবে কিনা তবে তার এই পরিশ্রমকে কুর্নিশ জানাতে হয়।

দেখে মনে হচ্ছে বয়স 12 থেকে 13 শিয়ালদা সাউথ লাইনে দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে ঝালমুড়ি বিক্রি করা আবার কখনো মা বিক্রি করা এই সবই তার কাজ।নেই বাবা-মা তাই নিজের পেট চালাতে গিয়ে প্রতিদিন এভাবেই স্টেশনে এসে তাকে রোজগারের ধান্দা করতে হয় আর সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় তাকে সাহায্যের আর্জি নিয়ে একটি পোস্ট করা হয়েছে ফেসবুকের তরফ থেকে। ডিম্ভাত নামের একটি ফেসবুক পেজ থেকে পোস্ট করা হয়েছে।যেখানে দেখা গিয়েছে একটি খুদে হলুদ রঙের গেঞ্জি পড়ে স্টেশনে দাঁড়িয়ে ঝালমুড়ি বিক্রি করতে ব্যস্ত।

তার নাম মোহাম্মদ নূর।ফেসবুকের তরফ থেকে আর্জি জানানো হয়েছে কাউকে সাহায্য করার জন্য বলছি না পারলে এদের থেকে কিছু কেনাকাটা করুন। সত্যি ভিডিওটি প্রমাণ করে এখনো আমাদের এই সমাজের বিভিন্ন স্তরের কত মানুষ কত কষ্টে জীবন যাপন করছে।ছবিটি ভাইরাল হওয়া মাত্রই ছেলেটির প্রতি সহানুভূতি জানিয়ে অনেকে অনেক রকম মন্তব্য করেছেন তবে তার এই লড়াই কে কুর্নিশ জানিয়েছেন সকলে।

আমাদের সমাজে শিশুশ্রমিক কখনোই আইনি কাজ নয় তবুও আমরা দেখতে পাই এখনো গ্রামাঞ্চলের মধ্যে এই কাজটি বিশেষভাবে প্রচলিত রয়েছে।অনেকে পড়তে চায় পড়াশোনা করে বড় হতে চাই কিন্তু সুযোগ পাইনা,একমুঠো খাবারের জন্য এক বেলার দিন যাপনের জন্য পড়াশোনা তাদের কাছে বড়ই বিলাসিতা হয়ে দাঁড়ায় তখন এক মুঠো ভাতই যেন তার কাছে বিলাসিতার বিষয়।

One thought on “নেই বাবা-মা, স্টেশনে দাঁড়িয়ে ঝালমুড়ি বিক্রি করে নিজের পেট চালায় বছর আটের এক রত্তি, সাহায্যের আর্তি নেট জনতার

error: Content is protected !!