মোদীকে কটাক্ষ, সোশ্যাল মিডিয়া ট্রোলের শিকার বাংলাদেশী গায়ক নোবেল

  • 376
    Shares

প্রথমে কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, এরপর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। পর পর বাংলাদেশি গায়ক মাঈনুল আহসান নোবেলের নজরে। প্রথমেই বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের আমার সোনার বাংলা গান নিয়ে কটাক্ষ এরপর নিজের মিউজিক ভিডিওতে দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে নিয়ে ব্যাপক তামাশা, কার্যত দেশ জুড়ে তোলপাড় ফেলে দিয়েছে। এরপর থেকে বার বার বিতর্কের মুখে পড়তে হয়েছে নোবেলকে। সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে নিয়ে কুরুটিকর মন্তব্যের জেরে সামাজিক মাধ্যমে তাঁকে কম ট্রোলড হতে হয়নি। কিন্তু তারপরেও সমালচনা অব্যাহত। তবে এবার নিশানায় নোবেলের তামাশা।

যে তামাশায় মোদীর বিরুদ্ধে আপত্তিকর কথা বলেছিলেন নোবেল সেই তামাশা নিয়ে এবার জোর তামাশা ফেবুকে। কিছুদিন আগে দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে চা ওয়ালা সম্বোধন করেন নোবেল, এরপর বিষয়টি প্রকাশ্যে আসতেই রীতিমতো তুলধনা করে দেন ভারতীয়রা। এরপর তাঁকে তলব করে RAB ও। কেন এই ধরনের মন্তব্য করলেন তা নিয়ে জবাব চাওয়াও হয়েছিল। তারপর ফেসবুকে পোস্ট মুছে দিয়ে মাঈনুল আহসান নোবেল একপ্রকার ক্ষমা চেয়ে নিয়েছিলেন। তিনি লিখেছিলেন,‘আমি দুঃখিত’। পাশাপাশি তিনি আরও লিখেছিলেন তাঁর তামাশা ভিডিওর জন্যই তিনি তামাশা করেছেন। যদিও নেবেলের এই যুক্তি কোনো অংশেই খাটে নি দেশের আপামোর জনতার কাছে।

তবে এবার নোবেলকে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় নানারকমের মিম প্রকাশ করছে ভারতীয়রা। জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী রানু মন্ডলের সঙ্গে নাকি নোবেলের বিয়ে হচ্ছে এমন একটি ছবিও শেয়ার করতে দেখা গিয়েছে। যদিও এরপর কি অপেক্ষা করছে তা জানা নেই কিন্তু ভোগান্তির যে শেষ নেই তার প্রমান পাওয়া গেল। তাই অনেকেই উপহাস করে বলছেন তামাশা করতে গিয়ে তামাশার শিকার হতে হল নোবেলকে।

প্রসঙ্গত, ২০১৮-১৯ সিদনে জি বাংলার জনপ্রিয় রিয়েলিটি শো সা রে গা মা পা তে অংশ নিয়েছিলেন মাঈনুল আহসান নোবেল। প্রতিযোগিতায় তৃতীয় স্থান অর্জন করেছিলেন। বার বার সা রে গা মা পার মঞ্চে তাঁর সঙ্গে এক বিচারকের বিবাদ হতে শোনা গিয়েছিল। যদিও প্রকাশ্যে আসেনি সেভাবে। কিন্তু তারপরেই কবিগুরু রবীন্দ্রনাথের জাতীয় সংগীত নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করে বসেন এবং গোটা বিশ্বের কাছে সমালচিত হন৷

error: Content is protected !!