মাটি হতে পারে দুর্গোত্সব, আগামী পাঁচদিন বৃষ্টি বজায় থাকবে রাজ্যে

পশ্চিমবঙ্গ 24×7 ডিজিটাল ডেস্ক: তৃতীয়া ও চতুর্থীর আকাশ পরিষ্কার থাকলেও পঞ্চমীর সকাল থেকেই ঝমঝমিয়ে বৃষ্টি শুরু হয়েছে কলকাতা সহ পশ্চিমবঙ্গের বেশ কয়েকটি জেলায়৷ তবে বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে আকাশ পরিষ্কার হলেও পুজোর সময়টা যে বাঙালির কপালে চিন্তার ভাঁজ ফেলতে চলেছে তা এক প্রকার জানিয়েই দিল আলিপুর আবহাওয়া দফতর৷ জানা গিয়েছে ষষ্ঠী থেকে দশমী ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে৷ যেহেতু চলতি বছরের বর্ষা বঙ্গে দেরি করে ঢুকেছে তাই বিদায় নেবে দেরিতেই৷ ষষ্ঠী থেকেই বৃষ্টি শুরু হলেও নবমী এবং দশমীতে বর্জ্য বিদ্যুত্সহ ব্যাপক বৃষ্টির সম্ভাবনা জারি করেছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর৷

তবে সকালের দিকে বৃষ্টির পরিমাণ বাড়বেই৷ রাতের দিকে পুজো দেখার আনন্দে ভাটা পড়বে না৷ এমনটাই জানিয়েছে হাওয়া অফিস৷ ষষ্ঠী সপ্তমী অষ্টমীতে বৃষ্টির পরিমাণ বাড়লেও দীর্ঘস্থায়ী হবে না৷ যদিও কোনও ঘূর্ণাবর্ত তৈরি হয়নি কিন্তু রাজ্যে যেভাবে জলীয় বাষ্প ঢুকেছে তাতে সমুদ্রের উচ্চচাপ বলয় তৈরি হয়েছে আর তাই পুজোর দিনগুলিতেও ভাসতে চলেছে গোটা রাজ্য৷

Image Credit- jagaran.com

কিন্তু আলিপুর আবহাওয়া দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে নবমী এবং দশমীর দিন সকালে প্রচণ্ড বৃষ্টি হলেও রাতের দিকে কিন্তু বৃষ্টি থেমে যাবে৷ তাই দিনে যদি ঠাকুর দেখার পরিকল্পনা থাকে তা শীঘ্রই বদলে ফেলুন৷ স্বাভাবিক নিয়মে প্রতি বছর সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহে বিদায় নেয় বর্ষা কিন্তু এ বছর আগস্টেও সেভাবে দেখা মেলেনি বৃষ্টির৷ বর্ষা বঙ্গে ঢুকেছে প্রায় জুলাইয়ের প্রথম সপ্তাহে তাই মৌসুমি বায়ু বিদায় নেওয়ার সময় কারও বেড়ে গিয়েছে৷

Image Credit- google.com

যদিও প্রাথমিক ভাবে মনে করা হচ্ছে অক্টোবরের দ্বিতীয় সপ্তাহে মৌসুমী বায়ু বঙ্গ থেকে বিদায় নেবে৷ কিন্তু পুজোর কটা দিন আমবাঙালির আনন্দ যে কিছুটা হলেও মাটি হতে চলেছে তা বলাই যায়৷ তবে প্রচণ্ড বৃষ্টি হলেও অস্বস্তির পরিমাণ বাড়বে বলেই জানালেও আলিপুর হাওয়া অফিস৷

Loading...
error: Content is protected !!