শেহবাগের দিল্লির বাড়িতে পঙ্গপাল হামলা, ভিডিও প্রকাশ্যে আনলেন প্রাক্তন ক্রিকেটার দেশ

  • 11
    Shares

জুড়ে পঞ্চম দফার লকডাউন অব্যাহত,এখনও দু দিন ধরে লকডাউন চলবে। যদিও তার পর লকডাউনের মেয়াদ বাড়বে কি না জানা নেই কিন্তু এই পরিস্থিতিতে ক্রমশই বেড়ে চলেছে কোরো না সংক্রমণ। রাজধানী শহরেও ইতিমধ্যে সংক্রমণের সংখ্যা এতটাই বেড়েছে যে গোটা রাজধানীর মানুষজন ঘরবন্দি হয়ে রয়েছেন । রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরীবাল বার বার সকলকে ঘর থেকে বেরতে নিষেধ করেছেন। দেশে যে ভাবে লাফিয়ে লাফিয়ে সংক্রমণের সংখ্যা বাড়ছে তাতে ঘরবন্দি ছাড়া দ্বিতীয় কোনো পথ নেই । তাই তো এই পরিস্থিতিতে ভিন রাজ্যের শ্রমিকদের পরিমাণ বাড়ছে। তবে করণ সংক্রমণের উপরে আবার দিল্লি উত্তরপ্রদেশ মধ্যপ্রদেশ রাজস্থান প্রভৃতি জায়গায় প্রচুর পরিমাণে পঙ্গপাল হানা দিয়েছে আর তাই তো পঙ্গপালের জেরে ঘরের জানালা দরজা বন্ধ করে রাখতে হচ্ছে।

তাই অন্যান্য জায়গার মতো দিল্লির এনসিআর এলাকাটিও পঙ্গপালের হানায় অতিষ্ঠ, যে এলাকায় থাকেন বীরেন্দ্র শেহবাগ। সেই জায়গাটিও কার্যত পঙ্গপালের হানায় জেরবার। এমনিতে ভারতের প্রাক্তন ক্রিকেটার মাঠে নিজের দৌড় দেখিয়েছেন বারবার। বহু বিদেশি ক্রিকেটারদের এক তুড়িতে কাজ করে দিতে তিনি পিছপা হন নেই। কিন্তু এ বার সেই ক্রিকেটারের বাড়িতেই পঙ্গপাল হামলা করলেও। যদিও গুরুগ্রাম থেকে শুরু করে পাঞ্জাবের বিস্তীর্ণ অঞ্চলে এই পঙ্গপাল হানা দিয়েছে কিন্তু দিল্লির এনসিআর এলাকায় যেভাবে পঙ্গপাল হানা দিয়েছে তাতে ঘরের জানালা দরজা সব সময় বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন।

প্রশাসনের নির্দেশ মতো সকলেই ঘরের জানালা প্লাস্টিক দিয়ে মুড়ে রেখেছেন যাতে পঙ্গপাল না কোনও ভাবেই হামলা করতে পারে। তাই তো দিল্লি পাঞ্জাব গুজরাত উত্তরপ্রদেশ সহ অন্যান্য রাজ্যগুলির বিস্তীর্ণ জায়গায় হাই অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে। তবে শুধুমাত্র কৃষকদের কৃষি ক্ষেত্রেই নয় বিমানবন্দর এলাকাগুলিতেও পঙ্গপাল ছেয়ে গিয়েছে।

View this post on Instagram

Locusts attack , right above the house #hamla

A post shared by Virender Sehwag (@virendersehwag) on

কৃষকদের যেমন স্প্রে ব্যবহার করতে বলা হয়েছে ঠিক তেমনই পাইলটদের টেক অফের সময় নানান সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বলা হয়েছে।কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে কৃষকদের কীটনাশক স্প্রে মজুত রাখতে বলা হয়েছে, যাতে পঙ্গপাল হানায় কোনও রকম সমস্যা না হয় তার জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে পর্যাপ্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বলা হয়েছে। কিন্তু এ ভাবে বীরেন্দ্র শেহবাগের দিল্লির বাড়িতে হঠাত্ পঙ্গপাল হানায় কার্যত অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছেন বীরেন্দ্র শেহবাগের পরিবারের সদস্যরা।

error: Content is protected !!