‘আমার স্বামীকে চুমু খাবোই’, মাস্ক পরতে বলতেই দিল্লি পুলিশের দিকে তেড়ে গেলেন এক যুবতী

  • 58
    Shares

চলতি বছরে আবার নতুন করে করোনাভাইরাস এর ভয়াবহতা শুরু হয়েছে যদিও এটি দ্বিতীয় পর্যায় কিন্তু এই পর্যায়টি অত্যন্ত মারাত্মক। অনেকেই করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছেন আবার অনেকে প্রাণ হারাচ্ছেন আর নিত্যদিন আক্রান্তের সংখ্যা এবং মৃত্যুর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে উত্তরোত্তর।করোনাভাইরাস এর প্রথম দফা শুরু হয়েছিল 2019 এর শেষ দিকে তাঁর দীর্ঘ কয়েক মাস বজায় ছিল কিন্তু কয়েক মাস আগে করোনা ভাইরাসের ভয়াবহতা কমে গেলেও বর্তমানে আবার তা বৃদ্ধি পেয়েছে আর এর পেছনে দায়ী করা হচ্ছে আমাদের সমাজকে।

সরকারি দপ্তর থেকে বারবার বলা হচ্ছে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এবং হাতে স্যানিটাইজার মুখে মাস্ক ব্যবহার করতে কিন্তু তা সত্ত্বেও এখনো অবধি আমাদের সমাজের অর্ধেকের বেশি মানুষ সচেতন নন আর তাদের অসচেতনতার জন্য আজ করোনাভাইরাস এর দাপট এতটা বৃদ্ধি পেয়েছে।গত বছর যেমন করোনাভাইরাস মহামারী আকার ধারণ করেছিল ঠিক তেমনি এ বছরও সেভাবেই আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে এবং হাসপাতালের চিকিৎসক নেই হাহাকার শুরু হয়েছে আর ইতিমধ্যেই আক্রান্তের সংখ্যা 2লক্ষ 70 হাজারের বেশি পৌঁছে গিয়েছে।

বেশ কিছু জায়গায় লকডাউন করে দেওয়া হয়েছে কিন্তু অনেক জায়গায় আবার সমস্ত কিছু খোলা থাকলেও মানতে হচ্ছে দূরত্ব বৃদ্ধি এবং সরকারি নির্দেশিকা অথচ তা সত্ত্বেও পুলিশের এই নির্দেশিকা কে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে রাস্তায় রাস্তায় ঘুরে বেড়াচ্ছেন অনেকে। ঠিক সেভাবেই এবার সরকারি নির্দেশিকা কে মান্যতা না দিয়ে উল্টে করণা যোদ্ধাদের সঙ্গে দুর্ব্যবহারের একটি ভিডিও প্রকাশ এসেছে যা রীতিমতো সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড় তুলে দিয়েছে।যে ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে সেটি দিল্লির আর সেই ভিডিও থেকে যা জানা যাচ্ছে সেটি হল এক দম্পতি গাড়ি নিয়ে রাস্তায় বেরিয়ে ছিলেন তাদের কাছে কারফিউ কাজ নেই অথচ মুখে মাস্ক নেই আর সেই অবস্থায় দিল্লি পুলিশের দরিয়াগঞ্জ এলাকায় কয়েকজন ট্রাফিক তাদের দাঁড় করালেন রীতিমতো জড়িয়ে পড়েন ওই দম্পতি।

বাদানুবাদ হতে থাকে এবং ওই মহিলা পুলিশ কে উদ্দেশ্য করে বলতে থাকেন আমি আমার স্বামীকে চুমু খাব এমনকি তার স্বামীও রীতিমতো তেরে গিয়েছেন পুলিশের দিকে শুধু তাই নয় তাদের গাড়ি কেন থামানো হলো এই প্রশ্ন বারবার করতে থাকেন এবং পুলিশের দিকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেন আর এর ফলস্বরূপ পংকজ দত্ত নামে ওই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ একই সঙ্গে ওই মহিলাকে আটক করা হয়।

প্রসঙ্গত করোনাভাইরাস এর ভয়াবহতা দেখে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল সপ্তাহের শেষে লকডাউন ঘোষণা করেছেন আর এই লকডাউন ঘোষণা করার পরেও কিন্তু এখনও অবধি অনেকেই সচেতন নন আর দিল্লিতে এই ধরনের 25 হাজারের মতো হয়েছে রবিবারের মধ্যে যা অবাক করার মত।

One thought on “‘আমার স্বামীকে চুমু খাবোই’, মাস্ক পরতে বলতেই দিল্লি পুলিশের দিকে তেড়ে গেলেন এক যুবতী

error: Content is protected !!