কষা মাংসের স্বাদকেও হার মানাবে এঁচোড় আর ডিম দিয়ে তৈরী নতুন এই রেসিপি, খেতে হবে মাছ-মাংসের চেয়েও ভালো

একই রকম খাবার খেতে খেতে মানুষের মধ্যে একটি একঘেয়েমি ভাবের সৃষ্টি হয়।একটি উপকরণকে বিভিন্নভাবে ঘুরিয়ে-ফিরিয়ে রান্না করা হয় খাবারের একঘেয়েমি দশা কাটানোর জন্য। এই কারণেই চেনা-পরিচিত সবজি আনাজ দিয়েই ঘুরিয়ে-ফিরিয়ে এত রান্নার আয়োজন।সোশ্যাল মিডিয়ায় বিভিন্ন সময় বিভিন্ন রকমের রান্নার রেসিপি শেয়ার হয়।‌ আর ভোজন রসিক বাঙালি রান্নার সেইসব রেসিপি দেখেই আহ্লাদিত হন।

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি নতুন রান্নার রেসিপি ভাইরাল হয়েছে। রোজ রোজ আমাদের পক্ষে মাংস খাওয়া সম্ভব হয় না কিন্তু মাংসের পদ মাত্রই যেন অতুলনীয় আমাদের কাছে। তাই আজকে এঁচোড়ের এমন একটি রেসিপি বলবো যা খেতে একদম মাংসের মতই লাগবে।

এই রান্নাটি করবার জন্য প্রথমে ছোট ছোট করে এঁচোড় কেটে নিতে হবে এরপর তার মধ্যে ডিম ফাটিয়ে দিতে হবে। এরপর তার মধ্যে দিতে হবে জিরেগুঁড়ো, আদা বাটা ,লঙ্কা বাটা ,রসুন বাটা ও সামান্য কাশ্মীরি লঙ্কাগুঁড়ো। পরিমাণমতো নুন ও এর মধ্যে দিয়ে দিতে হবে।

এরপর সমস্ত উপকরণ গুলি ভালোভাবে মাখিয়ে নিতে হবে। এরপর কড়াই তে ভাল করে ভেজে নিতে হবে এই উপকরণ গুলি। তারপর অন্য একটি কড়াই নিতে হবে ও সেখানে ছোট ছোট অংশে আলু কেটে ভেজে নিতে হবে। এরপর সেই কড়াইয়ের মধ্যে দিতে হবে কিছু পরিমাণ পিঁয়াজ কুচি, কিছুটা লঙ্কা, হলুদ ইত্যাদি।এর মধ্যে এবার দিয়ে দিন আগে থেকে ভেজে রাখা আলু গুলি। এরপর আগে থেকে ভেজে রাখা এচোঁড়ের মিশ্রণটিও এর মধ্যে দিয়ে দিন। এরপর সমগ্র মিশ্রণটি ৫ থেকে ৭ মিনিট ভাল করে নাড়তে থাকুন।

তারপর জল দিয়ে ঢাকা দিয়ে রেখে দিন। দুই থেকে তিন মিনিটের জন্য এর পর ঢাকনা খুলে দেখুন আপনার উপকরণ তৈরি। এই তরকারিটি আপনি ভাত বা রুটি যেকোনো আইটেমের সঙ্গে জমিয়ে বসে খেতে পারবেন। বাড়িতে অতিথি এলে সার্ভ ও করতে পারবেন এই আইটেম।

One thought on “কষা মাংসের স্বাদকেও হার মানাবে এঁচোড় আর ডিম দিয়ে তৈরী নতুন এই রেসিপি, খেতে হবে মাছ-মাংসের চেয়েও ভালো

Leave a Reply