করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব কালের অফিস যাত্রীদের জন্য দারুণ খবর, শীঘ্রই আসছে সোশ্যাল ডিসট্যান্স বাইক

  • 53
    Shares

করোনা ভাইরাস, একটাই শব্দ, যা এক কথায় বিশ্বের বিভিন্ন দেশকে তোলপাড় করে দিচ্ছে। প্রতি দিন বাড়ছে মৃত্যু মিছিল বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা তাঁর সঙ্গে পাল্লা দিয়ে সুস্থতার সংখ্যাও বাড়ছে। যে ভাবে লাফিয়ে লাফিয়ে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ছে তাতে সমস্ত দেশের সরকারের তরফে বারবার বলা হচ্ছে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে, কারণ সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা ছাড়া করোনা ভাইরাসের হাত থেকে রেহাই পাওয়া মোটেও সম্ভব নয়। ঘরবন্দি যার অন্যতম মাধ্যম হিসেবে তুলে ধরেছেন সকলে আর তাই তো বিভিন্ন দেশ বিদেশ জুড়ে এখন লক ডাউন চলছে। কিন্তু লকডাউনের নিয়ম শিথিল করে দেওয়া হয়েছে তাই অফিস কাছারি সমস্তটাই খুলে দেওয়া হয়েছে।

তবে যে হেতু ট্রেন চলাচল বন্ধ তাই সকালে অফিস যাচ্ছেন বাইকে কিংবা পার্সোনাল গাড়িতে । যদিও কত দিন এ ভাবে বাইকে বা গাড়িতে অফিস যাতায়াত করতে হবে তা এখনও অবধি কারও কাছে সঠিক ভাবে জানা নেই। তাই তো এই পরিস্থিতিতে, যেমন ইলেকট্রিক একটি উন্নত প্রযুক্তির এবং অনন্য স্কুটি নিয়ে হাজির হয়েছে। এটি একটি সোশ্যাল ডিস্টেন্স বাইক, যার মাধ্যমে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলাফেরা করা সম্ভব। এই মিনি বাইকটির নাম দেওয়া হয়েছে মেসো।

মিনি স্কুটার টির দুটি ভেরিয়েন্ট আনা হয়েছে, যাতে একটি মাত্র বসার সিট রয়েছে আর রয়েছে মালপত্র বহন করার কেরিয়ার। প্রথম ভেরিয়েন্ট স্কুটার টিতে এক শ কুড়ি কেজি অবধি মালপত্র বহন করা সম্ভব অন্যদিকে অন্য ভেরিয়েন্ট টের স্কুটার টিতে যদিও মালপত্র বহন করার কেরিয়ার নেই তবে এই দুটি স্কুটার লিথিয়াম ও আয়ন সমৃদ্ধ ব্যাটারি দিয়ে তৈরি। এটি মাত্র দু ঘণ্টা চার্জ দিলে 75 কিমি অবধি যাওয়ার সক্ষমতা রাখে।

তবে যেহেতু করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব রয়েছে তাই এই মুহূর্তে স্কুটার কিনলে গ্রাহকরা মাত্র 44 হাজার টাকা দিয়ে কিনতে পারবেন এবং দুই হাজার টাকা অবধি ছাড় পাবেন। এই স্কুটার সম্পর্কে বলতে গিয়ে সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, একটা সময়ে ব্যবসার দিক থেকে আমরা যখন খুবই ধাক্কা খাচ্ছিলাম, ঠিক তখনই মানুষের সেফটির কথা মাথায় রেখে ব্যবসা চালিয়ে যাওয়াও খুবই দুষ্কর হয়ে দাঁড়াচ্ছিল। এই সংকটজনক পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে মানুষের জন্য অত্যন্ত নিরাপদ একটি যান হতে চলেছে মিসো

error: Content is protected !!